শিশুকে সুস্থ রাখতে যা করবেন

কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: শিশু হচ্ছে একটি ঘরের প্রাণ। তার হইচই, দুষ্টুমির মধ্যেই যেন টিকে থাকে বাকি সবার আনন্দ। কিন্তু সঠিক যত্নের অভাবে অনেক সময় শিশু অসুস্থ হয়ে যেতে পারে। সুস্থ শিশু মানেই হাসিখুশি আর প্রাণোচ্ছ্বল। শিশুকে সুস্থ রাখার জন্য গড়ে তুলতে হবে কিছু অভ্যাস।
কম পরিশ্রম শিশুর শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। তাই বাইরে খেলতে যেতে চাইলে না বকে উৎসাহ দিন। বাড়ির কাছাকাছি কোনো মাঠ না থাকলে চেষ্টা করুন অন্তত কিছুটা সময় সাইকেলিং, সাঁতার বা কোনো খেলার প্রশিক্ষণে ভর্তি করতে।
কম ঘুম ওর মস্তিষ্কে অক্সিজেন সরবরাহে বাধা সৃষ্টি করে। ফলে শিশু অল্পেই ক্লান্ত হয়ে পড়ে। কম বয়সেই অনিদ্রার শিকারও হতে পারে। নির্দিষ্ট সময়ে আলো নিভিয়ে ঘুম পাড়িয়ে দিন।
শিশুর সামান্য অসুখে মুঠো মুঠো অ্যান্টিবায়োটিক দিচ্ছেন কি? এতে কিন্তু ক্ষতি হচ্ছে শিশুর। ডাক্তারের পরামর্শ না মেনে অ্যান্টিবায়োটিক দিলে তা কিন্তু প্রভাবিত করে শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে। শরীরে অ্যান্টিবডি রেজিস্ট্যান্ট তৈরি হয়। খেয়াল রাখুন সে দিকে।
জরুরি কিছু স্বাস্থ্যকর অভ্যাসে অভ্যস্ত করুন শিশুকে। ক্লান্ত থাকলেও বাইরে থেকে এসে হাত-মুখ ধোওয়া, দিনে দু’বার দাঁত মাজা, হাত ধুয়ে খেতে বসা, ঠিক ভাবে গোসল করা- এই নিয়মগুলোতে অভ্যস্ত হয়ে গেলে শরীরে সহজে জীবাণু বাসা বাঁধবে না।
বাইরের খাবারে অভ্যস্ত করে ফেলছেন শিশুকে? তা হলে এ বার সময় হয়েছে ভাবার। হাই প্রোটিন আর লো কার্বসের ডায়েট রাখুন শিশুর বিকাশের কথা ভেবে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, শরীরকে সুস্থ রাখে এমন খাবার দিন। মৌসুমী তরিতরকারি ও ফল রাখুন খাদ্যতালিকায়।
শিশুর কাছে সহজ হন। যেন আপনাকে সে বলতে পারে সব। এতে তার মন ভালো তো থাকবেই, সঙ্গে স্ট্রেস হরমোনের প্রভাব কমে শরীর থাকবে তরতাজা।