রোহিঙ্গা সন্দেহে দিনাজপুরে কিশোর আটক

কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: দিনাজপুরের বিরলে মায়ানমারের নাগরিক বা রোহিঙ্গা সন্দেহে এক কিশোরকে আটক করেছে স্থানীয় জনতা। আটককৃত কিশোরকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।
আজ বিকালে বিরল উপজেলার বিজোড়া ইউপির শ্রীকৃষ্ণপুর গণিমার্কেট সংলগ্ন রেলব্রীজের পাশে অস্পষ্ট ভাষায় কথা বলা এক কিশোরকে স্থানীয় লোকজন আটক করে। পরে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে রোহিঙ্গাদের মত ভাষা উচ্চারণ করায় স্থানীয় জনতা পুলিশে খবর দেয়। এসময় বিরল পুলিশ তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। 
বিরল থানার ওসি আব্দুল মজিদ জানান, আটকৃত কিশোরের তথ্য যাচাই-বাছাই চলছে। প্রকৃত তথ্য জানার পর ব্যবস্থা নেয়া হবে। তার ভাষা বোঝা যাচ্ছে না। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতের নাম মানিক আন্ডা (১৭), পিতা- সুপার আন্ডি সুপার মানি, মা- কালিমা, গ্রাম- রোহিঙ্গা, মিয়ানমার বলে জানা গেছে।
মায়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা যেন বাংলাদেশের সাধারন জনগোষ্ঠির সাথে মিশে না যেতে পারে তার জন্য প্রশাসন বেশ তৎপর রয়েছে। এই শরনার্থীদেরকে মায়ানমারে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকার ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা কাজ করছে যদিও তা এখন পযর্ন্ত কোন সাফল্য লাভ করেনি।
তারপরও মাঝে মাঝেই রোহিঙ্গা শিবির থেকে শরনার্থীদের পালিয়ে যাবার বিভিন্ন খবর সংবাদ মাধ্যমে আসছে। এই কাজে বাংলাদেশের একটি চক্রও বেশ সক্রিয়। তাই এ ব্যপারে সরকারকে নজরদারি আরো বাড়াতে হবে।