এই সময়ে
হোম / খেলাধূলা / সোমবার শুরু ওয়ালটন বিশেষ শিশু-কিশোরদের শীতকালিন ক্রীড়া উৎসব
ক্রীড়া

সোমবার শুরু ওয়ালটন বিশেষ শিশু-কিশোরদের শীতকালিন ক্রীড়া উৎসব

কিশোর বাংলা প্রতিবেদনঃ ক্রীড়াবান্ধব প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের পৃষ্ঠপোষকতায় ও জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) ব্যবস্থাপনায় আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি সোমবার থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ওয়ালটন বিশেষ শিশু-কিশোরদের শীতকালিন ক্রীড়া উৎসব-২০১৯। ধানমন্ডির সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে দুইদিন ব্যাপী এই প্রতিযোগিতা মঙ্গলবার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

প্রতিযোগিতার মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে এটিএন বাংলা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও খেলাগুলো সরাসরি সম্প্রচার করবে এটিএন বাংলা।

প্রতিযোগিতার বিষয়ে বিস্তারিত জানানোর জন্য আজ বৃহস্পতিবার মাওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর (গেমস এন্ড স্পোর্টস) ও জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির সভাপতি এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন), জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির সহ-সভাপতি মেজর (অবঃ) মো. ইয়াদ আলী ফকির ও এটিএন বাংলার উপদেষ্টা (চেয়ারম্যান) কর্নেল (অবঃ) মীর মোতাহার হাসানসহ অন্যান্যরা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় এবারের এই শীতকালিন ক্রীড়া উৎসবে সারাদেশের বিভিন্ন প্রতিবন্ধী সংস্থা, সংগঠন ও স্কুলের প্রায় ৪০০ জন শিশু-কিশোর অংশ নিবে। সাধারণত প্যারা অলিম্পিকে যে সকল ডিসিপ্লিন থাকে সেসব ডিসিপ্লিনে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়ন, রানার্স-আপ দলকে ট্রফি দেওয়া হবে। এ ছাড়া প্রতিটি ক্যাটাগোরিতে ভালো করা বিশেষ শিশু-কিশোরদের ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে পুরস্কৃত করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে মেজর (অবঃ) মো. ইয়াদ আলী ফকির বলেন, ‘জাতীয় প্রতিবন্ধী ক্রীড়া সমিতির (এনএএসপিডি) পক্ষ থেকে ওয়ালটনকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমাদের সঙ্গে ওয়ালটন গ্রুপ গেল কয়েক বছর ধরে কাজ করছে। এই ধরনের আয়োজনে ওয়ালটন গ্রুপ এগিয়ে আসায় কৃতজ্ঞতকা প্রকাশ করছি। এ ধরণের পিছিয়ে পড়া অসহায় প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য এগিয়ে আসা খুবই প্রয়োজন। ওয়ালটন আন্তরিকতার সঙ্গে এই কাজে এগিয়ে এসেছে। সে জন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই।’

এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, ‘এর আগে আমরা ওয়ালটন পরিবার ‘সুইড’ বাংলাদেশের সঙ্গে বিশেষ শিশু-কিশোরদের জন্য কাজ করেছি। গেল প্রায় ছয় বছর ধরে এনএএসপিডি এর সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছি। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও তাদের সঙ্গে কাজ করতে যাচ্ছি। ওয়ালটন পরিবার সব সময় এই বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের নিয়ে কাজ করতে আগ্রহী। কারণ, আমাদের দেশের শিশুদের জন্যই খুব বেশি সুযোগ নেই। সেখানে প্রতিবন্ধী শিশুদের সুযোগের কী অবস্থা সেটা সহজেই অনুমেয়। আমাদের প্রতিবন্ধী শিশুরা নানারকম সুযোগ-সুবিধা পেলে হয়তো তারাও অনেক বড় হতে পারবে। কারণ, আমরা বিশ্বাস করি বাংলাদেশে অনেক প্রতিভাবান প্রতিবন্ধী শিশু রয়েছে। আমরা ওয়ালটন পরিবার এ ধরণের সব শিশুদের নিয়েই কাজ করতে চাই। আগামীতেও আমরা আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত রাখার চেষ্টা করব।’

‘আশা করব ওয়ালটন গ্রুপের মতো অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও এই ধরনের বিশেষ শ্রেণির শিশু-কিশোরদের পাশে দাঁড়াবে। সবাই একাত্ব হয়ে কাজ করে চেষ্টা করব এই বিশেষ শিশু-কিশোরদের নিজ নিজপ্রতিভা ও সামর্থের বিকাশ ঘটিয়ে তাদের সমাজের স্বাভাবিক ট্রাকে ফিরিয়ে আনতে।’ যোগ করেন তিনি।

এই প্রতিযোগিতার সহযোগিতায় রয়েছে ওয়ালটন গ্রুপের জনপ্রিয় ব্র্যান্ড মার্সেল। রেডিও পার্টনার রেডিও টুডে। আর অনলাইন পার্টনার হিসেবে রয়েছে দেশের অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইন নিউজপোর্টাল রাইজিংবিডি ডটকম।

আরও দেখুন

বাংলাদেশ

থাইল্যান্ডকে রুখে দিলো কিশোর ফুটবলাররা

কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: উয়েফা আয়োজিত যুব ফুটবল টুর্নামেন্টে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে শক্তিশালী থাইল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ …