হোম / কিশোর চিন্তা / সফল ভবিষ্যৎ গঠনে কিশোরদের করনীয়
ভবিষ্যৎ

সফল ভবিষ্যৎ গঠনে কিশোরদের করনীয়

কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব দিবে বর্তমান কিশোররা।  তাদের ভেতর যে সুপ্ত প্রতিভা লুকিয়ে আছে তা সুষ্ঠুভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করা প্রতিটি নাগরিক ও রাষ্ট্রের দায়িত্ব।  অনেক রক্তের বিনিময়ে পাওয়া আমাদের এই বাংলাদেশ।  ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের রক্তই তার প্রমান। 

জীবনের লক্ষ্য নির্ধারণ

মাঝিবিহীন নৌকা যেমন লক্ষ্যহীন জীবন তেমন। লক্ষ্যহীন জীবনকে লাগামহীন ঘোড়ার সাথে তুলনা করা যেতে পারে। মনে রাখতে হবে মানুষের জীবনে যেকোনো কিছু ঘটুক আসলে আমি যা চাই তার আগে আমাকে তা কামনা করতে হবে এবং পূর্ণ নিশ্চিত থাকতে হবে যে তা ঘটবে।

সঠিক পরিকল্পনা

যেকোনো কাজের চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছার প্রাথমিক বা গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো একটি সুন্দর ও সুসমন্বিত পরিকল্পনা। পরিকল্পনা ব্যতিরেকে কখনো কোনো ধারাবাহিক কাজের সফলতা অর্জন সম্ভব নয়। তাই আমাদের কিশোর বয়স থেকেই সঠিক পরিকল্পনার মাধ্যমে তার বাস্তবায়ন ঘটাতে হবে ।

স্বীয় প্রতিভা শনাক্তকরন

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অনেকে নিজের মেধা এবং দক্ষতা নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দে উপনীত হয়। বস্তুত নিজের উপর যথেষ্ট অনাস্থা থেকেই এ ধরনের দ্বিধাদ্বন্দের সৃষ্টি। এ থেকে উত্তরনের জন্য প্রয়োজন আত্মপর্যালোচনা এবং তার উপর ভিত্তি করে নিজের অবস্থান নির্ধারন করা, নিজের দক্ষতা এবং পারদর্শীতা শনাক্ত করা।আকাশ কুসুম স্বপ্ন কিংবা কল্পনা অবশ্যই পরিতাজ্য।

শিক্ষা অর্জন ও মেধার সর্বোচ্চ ব্যবহার

সাবলীল ভবিষ্যৎ গঠনে শিক্ষার বিকল্প নেই। বিভিন্ন ক্ষেত্রে সম্ভাবনাময় এবং দক্ষ হওয়া সত্ত্বেও পরিপূর্ণ শিক্ষার অভাবে অনেকেই সে দক্ষতা সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারে না। পুথিগত বিদ্যার পাশাপশি প্রয়োজন প্রচুর পরিমানে ব্যবহারিক শিক্ষা গ্রহন করা। নিজেকে মেধাহীন কিংবা অন্যদের চেয়ে কম মেধাবী মনে করলে চলবে না, বরং যতটা সম্ভব লেখাপড়া করতে হবে নিঃসংকোচে।

সময়ের যথাযথ ব্যবহার

সময়ের গুরুত্ব সর্বসময়েই অনস্বীকার্য। তবে ছাত্রজীবনে সময় অন্যরকম গুরুত্ব বহন করে। বস্তুত এখানে সময়ের সদ্ব্যবহার করতে অপারগ হলে, না পাওয়ার বেদনায় বাকি জীবনটা ছারখার হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা থাকে। প্রতিদিনের পড়াশুনা এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজকর্ম সম্পাদন একটা পরিকল্পনার মাধ্যমে করা একান্ত প্রয়োজন। সেই সাথে খেলাধূলা এবং সুস্থ বিনোদনের জন্য নির্দিষ্ট সময় সীমা বরাদ্দ করাও অত্যাবশ্যক।

সবশেষে কিশোরদের উচিত, এমন কিছু করা যা তাদের ভবিষ্যৎ সুন্দর করবে, এমন কাউকে অনুকরণ করা- যাকে অনুকরণ এর মাধ্যমে জীবনের একটি প্লাটফর্ম তৈরি হবে । মনে রাখতে হবে যোগ্যতার বিকল্প কেবলমাত্র যোগ্যতাই হতে পারে।

আরও দেখুন

ব্যবহার

কিশোর সন্তানের সাথে কেমন ব্যবহার করবেন?

কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: সাধারণত বয়ঃসন্ধির সময়  শারীরিক পরিবর্তনের কারণে সন্তানের ব্যবহারে বেশ পরিবর্তন আসে।  শারীরিক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *