সন্তানকে
কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: সন্তান যত বড়ই হোক মা-বাবায়ের কাছে তারা সেই ছোট্টটিই থেকে যায়। কিন্তু মা-বাবাকে এটা মনে রাখতে হবে, শৈশব থেকে কৈশোরে পা দেওয়ার পর সন্তানদের মধ্যে নানা রকমের পরিবর্তন ঘটে। শারীরিক, মানসিক পরিবর্তনের কারণে নানা অনুভূতি তাদের ভিতরে ঘুরপাক খায়, তখন পরিবারের মা-বাবার উচিত সন্তানকে বেশি সময় দেওয়া। গুরুত্বপূর্ণ সময়টিতে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন তার মা-বাবার।
সম্পর্ক সুদৃঢ় করুন
কতটুকু সময় দিলেন এটা বড় ব্যাপার না, লক্ষ্য রাখুন যেন তাদের সঙ্গে একটা মানসম্মত সময় কাটাতে পারেন। সন্তানের মনের অবস্থা জানার জন্য সময় দেওয়া প্রয়োজন।
একসঙ্গে খাওয়ার চেষ্টা করুন
রাতের খাবারটা সব সময় পরিবারের সবাই মিলে একসঙ্গে খাওয়ার চেষ্টা করুন। সবার সঙ্গে খাবারের টেবিলে সময় দিলে সম্পর্ক উন্নত হয়।
পছন্দের জিনিসে আগ্রহ দেখান
একসঙ্গে বসে ভালো সময় কাটানোর জন্য তাদের পছন্দের কিছু করুন। অনেক সময় তারা ভিডিও গেম খেলতে পছন্দ করে, তাদের পছন্দের ওপর গুরুত্ব দিয়ে তাদের সঙ্গে সময় দিন।
নতুন কিছু শেখান
কৈশোরের প্রথম পর্যায়ে সন্তানদের মনের পরিবর্তন সঙ্গে সঙ্গে তাদের পছন্দের ধরন পাল্টাতে থাকে। এ সময় তারা অনেক কিছু শিখতে চায়। শেখার ক্ষেত্রে বাধা না দেওয়াই ভালো। বরং ভাষা শিক্ষা বা যন্ত্রসঙ্গীত শিক্ষা শিশুদের মেধা বিকাশে সাহায্য করে।
ঘুরতে বের হন
ভালো সময় কাটানোর জন্য দূরে কোথাও ঘুরে আসতে পারেন। এতে মন ভালো হবে এবং আপনার সন্তানের সঙ্গে সম্পর্ক গভীর হবে।