হোম / কিশোর সংবাদ / বন্ধ হয়ে গেছে ব্র্যাকের ৩০ হাজার বিদ্যালয়
ব্র্যাক

বন্ধ হয়ে গেছে ব্র্যাকের ৩০ হাজার বিদ্যালয়

কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: প্রত্যন্ত অঞ্চলের সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর শিশুদের শিক্ষার আওতায় আনতে কাজ শুরু করে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক। এক শ্রেণীকক্ষ ও এক শিক্ষক কর্মসূচির মাধ্যমে গড়ে তোলে প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়।

২০০৫-০৬ সালের দিকে ব্র্যাক পরিচালিত প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা দাঁড়ায় প্রায় ৪০ হাজার। কিন্তু বিদেশী অনুদান কমে যাওয়া ও সরকারি বিদ্যালয়ের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় এখন ক্রমান্বয়ে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ব্র্যাকের এসব স্কুল।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে ব্র্যাক পরিচালিত প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ১০ হাজারের কিছু বেশি। সে হিসাবে গত এক যুগে ব্র্যাক পরিচালিত প্রায় ৩০ হাজার স্কুলই বন্ধ হয়ে গেছে।

বিদ্যালয় বন্ধ হয়ে যাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক ডা. মুহাম্মদ মুসা বণিক বার্তাকে বলেন, আমরা যখন শিক্ষা কর্মসূচি শুরু করি, তখন দেশের প্রাথমিক শিক্ষার অবস্থা ছিল অত্যন্ত নাজুক।

প্রত্যন্ত অঞ্চলের এলাকাগুলোয় বিশেষ করে হাওড়াঞ্চল ও নদীভাঙন কবলিত অঞ্চলগুলোর সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য শিক্ষার ব্যবস্থা করে দেয়াই ছিল আমাদের লক্ষ্য। সময়ের পরিক্রমায় দেশের প্রাথমিক শিক্ষার প্রসার ঘটেছে। বিশেষ করে গত কয়েক বছরে ঝরে পড়ার হার অনেক কমেছে।

প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতেও সরকারি উদ্যোগে বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এর ফলে আমাদের স্কুলের সংখ্যাও কমেছে। এক সময় প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিক মিলে ৩৫-৪০ হাজারের মতো স্কুল ছিল। এখন স্কুলের সংখ্যা অনেক কম।

আরও দেখুন

পুরস্কার

১৯ জানুয়ারি দেশব্যাপী জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা শুরু

কিশোর বাংলা প্রতিবেদনঃ আগামী ১৯ জানুয়ারি একযোগে সারাদেশে জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা-২০১৯ শুরু হতে যাচ্ছে। …