এই সময়ে
হোম / স্বাস্থ্য / ঢাকা দক্ষিণে ৪ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ‘ভিটামিন এ’
ঢাকা

ঢাকা দক্ষিণে ৪ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ‘ভিটামিন এ’

কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: শনিবার ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকার প্রায় ৪ লাখ শিশুকে ‘ভিটামিন এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
গতকাল নগর ভবন মিলনায়তনে ‘ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন’ সফল করতে ওরিয়েন্টেশন ও অ্যাডভোকেসি সভায় এ তথ্য জানান সিটি করপোরেশন, জনস্বাস্থ্য ও পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা।
ডিএসসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রি. জে. শেখ সালাউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ডা. এবিএম মুজহারুল ইসলাম। এ ছাড়া উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় জানানো হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষিত এই ‘ভিটামিন এ’ ক্যাপসুল শিশুর জন্য সম্পূর্ণ নিরাপদ। আগামী ২৩ ডিসেম্বর ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৫১ হাজার শিশুকে নীল রঙের ক্যাপসুল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী তিন লাখ ৩১ হাজার শিশুকে লাল রঙের ‘ভিটামিন এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে ডিএসসিসি।
সংস্থাটির স্বাস্থ্য বিভাগের এক হাজার ৪৮৭টি কেন্দ্রের মাধ্যমে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত এ কর্মসূচি চলবে। কেন্দ্রগুলোতে দুই হাজার ৯৭৪ জন স্বেচ্ছাসেবক ও ২৮৬ জন সুপারভাইজার কর্মসূচি তত্ত্বাবধান করবেন।
এ ছাড়া বাসস্ট্যান্ড, লঞ্চঘাট, ফেরিঘাট, খেয়াঘাট, ব্রিজের টোল প্লাজা, বিমানবন্দন, রেলস্টেশনে ভ্রাম্যমাণ কেন্দ্র স্থাপন করে ‘ভিটামিন এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
বক্তারা বলেন, ‘ভিটামিন এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হলে শিশুর রাতকানা রোগ প্রতিরোধ ছাড়াও অন্যান্য রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। এ ছাড়া দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখা, মৃত্যুর হার কমানো, স্বাভাবিক বেড়ে ওঠা নিশ্চিত এবং ডায়রিয়ার ব্যাপ্তিকাল এবং হামের জটিলতা কমাতে ‘ভিটামিন এ প্লাস’ ক্যাপসুল অত্যন্ত কার্যকর।

আরও দেখুন

নিউমোনিয়া

শীতে শিশুর নিউমোনিয়ায় করণীয়

কিশোর বাংলা প্রতিবেদন: শীতে সবচেয়ে বড় সমস্যা শিশুদের নিউমোনিয়া। যারা শীতকালে জন্মগ্রহণ করে তাদের ক্ষেত্রে …