মা

এমনিভাবে তুমি মা
নাবিলা দিয়া

বারে বারে ক্ষণে ক্ষণে, শত ঝামেলার গহ্বর হতে
আর্তনাদ হাহাকারের ভীড়ে, মনের জানালার ফাঁকে
হাজারো ভীড়ের মাঝে, দূরদূরান্ত হতে
ভিন্ন আঙ্গিকে, এক বিশৃঙ্খল স্রোতে
অনাদরে আবদারের আড়ালে, ছলনায় ভাবনাতে
কাব্য রচনাকালে, প্রশান্তির এক চুমুক পেতে
তৃঞ্চার্ত দৃষ্টিতে কত যে আক্ষেপ, কত যে কান্নার ছলে
কি যেন পাই আবার হারায়ে, স্মৃতিতে বিদ্ধ ছবি হতে
কিংবা আমার দৃষ্টিপট হতে, আওয়াজের শব্দ কল্পনাতে
কখনো একমনে বসে থাকা বহুদূরের সেই ঘরে
কখনো নানার কাজের ব্যস্ততায়, নানান ভঙ্গিতে
খেয়ালী হেয়ালিপনায় আমার দৃষ্টিকোণে এসে
ধরা দাও বারবার, স্মৃতিপটে আসো বারংবার
এমনিভাবে তুমি মা – আমার মা হাজার সহস্রবার ।